বায়ু দূষণের কারনে অতিষ্ঠ হয়ে ঠিক করেছি এখন থেকে পরিবেশ অধিদপ্তর, বিআরটিএ, রাজউক ও সিটি কর্পোরেশনে নিয়মিত লিখিত অভিযোগ জানাবো। এরপরেও কোন ব্যবস্থা না নিলে পরবর্তীতে আরো কঠিন আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো। শুধু পরিবেশ দূষণ নয়, কোন পণ্য/সেবা কিনে প্রতারিত হলেও লিখিত অভিযোগ করা উচিত। এছাড়া পরিস্থিতির পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা কম।

SAMSUNG

আজ বায়ু দূষণ নিয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করে একটি চিঠি লিখলাম, আশা করি আগামী সোমবার তা হাতে হাতে পৌঁছাতে পারবো।

দেখি কি হয়।

 

৫ই ডিসেম্বর, ২০১৬

বরাবর
মহাপরিচালক,
পরিবেশ অধিদপ্তর,
আগারগাঁও, ঢাকা।

বিষয়ঃ শুষ্ক মৌসুমে ঢাকা শহরে ধোঁয়া ও ধুলাজনিত বায়ু দূষণ নিয়ন্ত্রনে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন।

জনাব,
আমি প্রবীর কুমার সরকার, পেশা-সাংবাদিকতা, ঢাকা শহরের মোহাম্মদপুর এলাকার একজন নিয়মিত বাসিন্দা।আপনি নিশ্চয়ই অবগত আছেন যে, ঢাকা শহরে আশেপাশের এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে উঠা শত শত ইটের ভাটা, কলকারখানা ও যানবাহনের ধোঁয়া এবং নির্মাণকাজে খামখেয়ালীপনার কারনে সৃষ্ট ধুলার কারনে সারা বছর ঢাকার বাতাস কম-বেশি বিষাক্ত থাকে।সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি হয় বর্ষাকালের পর শুষ্ক মৌসুমে যখন বেশিরভাগ ইটের ভাটা দিন-রাত কালো বাতাসে ছাড়ে।

এছাড়া বায়ু দূষণের আরেকটি কারন আজকাল নিয়মিতভাবে দেখা যাচ্ছে, আর তো হলো রাস্তাঘাটে ও ডাস্টবিনে জমানো ময়লা-আবর্জনা পুড়িয়ে ফেলা।সকাল থেকে শুরু করে রাতের বিভিন্ন সময়ে ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় এ ধরণের ঘটনা দেখা যাচ্ছে।এতে করে বিভিন্ন ধরণের মিশ্র বর্জ্য থেকে সৃষ্ট বিষাক্ত ধোঁয়া মানুষ – বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধ, অন্যান্য প্রাণি ও গাছপালার মারাত্মক ক্ষতি করছে যা দ্রুত বন্ধ হওয়া জরুরি।

এ নিয়ে পত্রিকা-টিভিতে নিয়মিত প্রতিবেদন প্রচার হচ্ছে, এমনকি হাইকোর্টের মাননীয় বিচারকরা বায়ু দূষণ রোধে যথযথ ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বার বার নির্দেশণা দিয়েছেন।কিন্তু এ পর্যন্ত কোন সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে বায়ু দূষণকারী ইটের ভাটা, যানবাহন বা ভবন/সড়ক নির্মাণ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোন দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেয়নি, যা খুবই দুঃখজনক।

অতএব, আপনার কাছে আমার বিনীত আবেদন এই যে, জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের কথা বিবেচনায় নিয়ে আপনি আপনার সংস্থা থেকে দোষীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ি সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নিবেন, বায়ু দূষণ রোধে জনগণকে সচেতন করতে নিয়মিত প্রচারণা চালাবেন এবং প্রয়োজনে পত্রিকা ও টিভি সাংবাদিকদের সহায়তা নিবেন।

ধন্যবাদান্তে,
………

 

Advertisements