100th dayগতবছর শান্তিমুগ্ধ নীলকণ্ঠ’র (পল্টু) জন্য আমাদের অপেক্ষার দিনগুলো যেন কাটতেই চাইতো না। প্রতিটা মুহুর্ত আমাদের লক্ষ্য ছিল ওর মা অলোকা যেন সুস্থ থাকে এবং কোনরকমের দুর্ঘটনার শিকার না হয়। তাহলে দুজনেই ভালো থাকবে। আলোকা কয়েকদিন অসুস্থ বোধ করলেও এবং পল্টুর নড়াচড়া কখনো কখনো অস্বাভাবিক হওয়া সত্বেও ৯ই নভেম্বর নির্ঝঞ্ঝাটে আমাদের কোলে এসে উপস্থিত হয়ে সকল জল্পনা-কল্পনা আর দুশ্চিন্তার অবসান ঘটালো।

পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর মুহুর্ত ছিল সেটা যখন শুনলাম আমাদের সুস্থ একটি ছেলে বাচ্চা হয়েছে এবং তার মা ভালো আছে!

গতকাল পল্টুর ১০০ দিন পূর্ণ হলো। সে ভালো আছে। ওর মা, আমাদেরব বড় ছেলে মোল্কি, আমি – আমরা ভালো আছি।

দেখতে দেখতে পল্টুর শতদিবস পার হয়ে গেলো…প্রতিদিন একটু একটু করে বড় হচ্ছে সে। নতুন নতুন অভ্যাস চোখে পড়ছে আমাদের। প্রথম মাসে শুধু মা-কেই চিনতো সে; তারপর আমাকে আর এখন সে মোল্কি আর স্বপন মামাকেও আলাদা করে বুঝতে পারে।

পল্টু কান্না শুরু করলে বা শরীর মোচড়ালে আমরা বুঝি যে সে হাগু-মুতু করেছে বা করতে চাচ্ছে। শুয়ে থাকতে ভালো না লাগলে পা ছুঁড়তে শুরু করে দেয় সে।

চলবে…

Advertisements