শ্রমিকের অধিকারঃ আন্দোলন বনাম দালালী


people's revolutionশ্রমিকশ্রেনীর জন্য কি করেছে আনু মুহাম্মদ-টাইপ নেতারা? এরা তো বাল-ছাল, খালি পারে ভাষন দিতে। এই টাইপ একটা প্রশ্ন ছিল একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর। আমার এই পরিচিত বালকটি যেটা মুখ ফস্কে বলতে পারেনি তা হলো, ‘একটা শ্রমিককে তো চাকরী দিতে পারলো না’…

যার টাকা আছে, সে টাকা বানাতে সেটা খাটাবে, তার দরকার শ্রমিক আর সেই গরীব-অর্ধশিক্ষিত-চাষাদের ঠিকভাবে কাজে লাগাতে দরকার কিছু উচ্চ শিক্ষিত ম্যানেজার/এক্সিকিউটিভের।

রপ্তানীতে সেরা গার্মেন্টস শিল্পের শুরু ৩০ বছর আগে হলেও য়ার এখন এই খাতে ৪০লাখ মতান্তরে ৮০লাখ শ্রমিক কাজ করলেও তাদের “মজুরি+কাজের পরিবেশ+স্বাস্থ্য+শিক্ষা+নিরাপত্তার” বিষয়গুলো মালিকেরা [কমপক্ষে ৯৫শতাংশ] বারবার এড়িয়ে যেতে চায়, এখনো। এইটা মনে হয় ব্যবসার কোন থিউরি – লাভের টাকা পকেটে ভরতে হবে, সেই টাকা যারা উপার্জনে মূখ্য ভূমিকা পালন করছে তাদেরকে কেন দিতে হবে! টাকা তো খাটিয়েছে মালিকেরা… পরিবেশের যে কিভাবে তারা বলাৎকার করছে সে কথা বলার ভাষা নাই।

আসলে বলতে চাইছিলাম, শিক্ষিত-চামবাজ ম্যানেজার/এক্সিকিউটিভরা সুবিধা নিতে জানে ভালোই; কিন্তু শ্রমিকেরা তো তাদের প্রাপ্য অধিকারের বিষয়েই সচেতন নয়। মহাজনদের পোষা দালালদেরও শ্রমিক সংগঠন আছে যাদের কাজ শ্রমিকদের চাপের মধ্যে রাখা-অধিকার বিষয়ে অন্ধকারে রাখা।   সেইসব শ্রমিকদের সাহায্য করতে সক্রিয়ভাবে কাজ করে কিছু বাম দলের অংগসংগঠন; তাদের কিছু নেতার নাম আমরা পত্রিকা-টিভির ভেতরের পাতায় বা ছবিতে দেখি। তারা কি বলেছে সেগুলো হরহামেশাই মহাজনদের দালাল মিডিয়ার কারনে চাপা পরে যায়। বরং বড় ছবি আর বক্তব্য দিয়ে প্রতিবেদন লেখা হয় বেতনের দাবীতে গার্মেন্টস শ্রমিকদের নাশকতা-ভাংচুর। পুলিশের নির্বিচার লাঠিপেটা চলে। সরকারপ্রধান বলে বসেন, এই শিল্পকে ‘অস্থিতিশীল’ করতে কেউ ষড়যন্ত্র করছে।

আমি প্রশ্ন হইলোঃ কোন সরকার কি আন্দোলন ব্যতিত এসব শ্রমিকদের জন্য মজুরি পুনঃনির্ধারন বা অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিয়েছে? আর এসব আন্দোলন করতে শ্রমিকদের কারা সাহায্য করেছে? যারা সাহায্য করেছে তারা যদি নিজেদের চাকরী-পেশা নিয়ে ব্যস্ত থাকতো তাহলে এইসব শ্রমিকদের অবস্থা এখন কি দেখতাম আমরা?

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ সাম্প্রতিককালে গার্মেন্টস শিল্পে কিছু খুনের [মহাজনেরা বলেন অসাবধানতাবশতঃ দূর্ঘটনা] কারনে অনেক সেমি-দালালের নজরে এসেছে এসব অমানবিকতা যারা সবার সামনে দাঁড়িয়ে চোখের পানি ফেলে নিজেকে মানুষের কাতারে ফেলার চেষ্টা করছে। আগে কই ছিলেন সেইটা আর জিগাইলাম না, কিন্তু সত্যিকারের মানুষ হইলে সারা বছর খালি ট্যাকাওয়ালাদের পা চাইটেন না, গরীব মানুষগুলার জন্য কিছু কইরেন।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s