অবশেষে মুহিত ভাই পদ্মা সেতু নিয়া “৪টা স্পষ্ট কথা” কইলেন। ১) বিশ্বব্যাংকের সাথে ২) অন্য ৩টি দাতা সংস্থা, সাথে নতুন কেউ ৩) পিপিপি ৪) নিজস্ব অর্থায়ন।

আমি শিউর না উনি প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলেছেন কিনা। আর সন্দেহ করছি সরকারের মধ্যে নানা কথা ঘুরছে, নানা “বিকল্প চিন্তা”–তবে তার প্রায় সবই “অবিবেচনাপ্রসূত”।

আজকে মুহিত ভাইয়ের কথা শুনে ভালো লেগেছে, তবে আশংকা প্রধানমন্ত্রী কাল সকালেই নতুন একটা থিউরি দেন কিনা সেটা নিয়ে। উনি রাজনৈতিক ডায়লগ দিয়ে যাচ্ছেন এই মাসের শুরু থেকে, আমরাই করে ফেলবো। কারো টাকার দরকার নাই টাইপের।

কিন্তু বাস্তবতা, মানে অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনার চিন্তা তিনি করেছেন বলে আমি মনে করিনা। করলে যে সেতু শত বছরেও হয়নি সেটা এখনি করার জন্য তিনি হন্যে হয়ে যেতেন না।

তার নির্বাচনী ওয়াদাতে তো আরো অনেক কিছু ছিল, কই সেগুলোর কি খবর? প্রথমটি ছিল “দ্রব্যমূল্য”, আর পরেরটি “দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থা”।

এগুলোর কি যে বেহাল অবস্থা তা আর বর্ননাতে যাচ্ছিনা।

আশা করি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাথা ঠান্ডা করে নির্বাচনমূখী বক্তৃতা না দিয়ে তার রাজনৈতিক বিবেচনা-জ্ঞান ও প্রজ্ঞার পরিচয় দিবেন।

পদ্মা সেতুঃ দুর্নীতির সংজ্ঞা পাল্টাতে হবে মনে হচ্ছে

SMS to Prime Minister Sheikh Hasina

Corruption cripples development

Advertisements