প্রায় ২ কোটি মানুষে গিজগিজ করা এই ঢাকা শহরে নানা রকমের জ্যাম লাগে; তার মধ্যে কোন কোনটা যৌক্তিক, আর বেশিরভাগই হলো ফালতু কারনে।

যৌক্তিক কারনের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে সরু রাস্তায় বেশি গাড়ির চাপ, কার্যকর ট্রাফিক পুলিশের অভাব বা অনুপস্থিতি এবং ব্যস্ত সড়কে কিছুদুর পরপর মোড় ঘোরার সুবন্দোবস্ত।

কারনগুলো যৌক্তিক হলেও মেনে নেওয়ার মত নয়। কেননা, দিন দিন মানুষ বাড়বে সেটা তো মহান প্রকৌশলীদের বুঝার কথা, সাথে রাস্তার উপর বাড়বে গাড়ির চাপ–তবে কেন সে অনুযায়ী রাস্তা তৈরি, সংস্কার বা ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা হয়না? এর দায় কে নিবে?

দূষিত-অস্বাস্থ্যকর  পরিবেশ, বাজে রাস্তাঘাট ও আনুষাঙ্গিক কারনে ঢাকা শহর ইতিমধ্যেই কয়েকটিজরিপে প্রথম স্থান অধিকার করেছে।

যানজটের ব্যাপারে কর্তারা দায়িত্ব স্বীকার করে সমস্যা সমাধানে দিনের পরদিন ব্যর্থ হওয়ায় ভুগছে সাধারন মানুষ, যাদের হাতে নেই ক্ষমতা।

আর চরম বিরক্তিকর, ফালতু কারনগুলোর মধ্যে আছে রাস্তায় মালামাল-গাড়ি ইত্যাদি ফেলে রাখা, ‘কে আগে যাবে’ ধরনের অসম-বেআইনী প্রতিযোগিতা, ট্রাফিক সিগন্যাল অমান্য করা, ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্ব পালনে গাফিলতি এবং বিশেষ করে ত্রুটিপূর্ণ ট্রাফিক আইন (বিভিন্ন এলাকার জন্য বিভিন্ন নিয়ম)।

এই সমস্যাগুলো তৈরিই হয় রাস্তায় চলাচলকারী, ট্রাফিক পুলিশ আর নগর পরিকল্পনাকারীদের অজ্ঞতা, মূর্খতা, ভুল, লোভ আর গাফিলতির কারনে।

রাস্তায় চলতে গিয়ে যানজটের করাল থাবার মুখে পড়ে শুধু আম-পাবলিক; আর নিজের দোষ ঢাকতে  গিয়ে কর্তারা দোষ ধরেন তার আগে চেয়ারে বসা লোকটার, দেখান অর্থ সমস্যা বা অদ্ভুত কোন যুক্তি।